আমাদের কোন আপডেট মিস না করতে গুগল নিউজে ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন

ফেব্রুয়ানী ১৯৬৯ কবিতার জ্ঞানমূলক প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন-১. ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতাটির রচয়িতা কে?
উত্তর: ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতাটির রচয়িতা শামসুর রাহমান।

প্রশ্ন-২. শামসুর রাহমান কত খ্রিষ্টাব্দে জন্মগ্রহণ করেন?
উত্তর: শামসুর রাহমান ১৯২৯ খ্রিষ্টাব্দে জন্মগ্রহণ করেন।

প্রশ্ন-৩. শামসুর রাহমানের পৈতৃক নিবাস কোথায়?
উত্তর: শামসুর রাহমানের পৈতৃক নিবাস নরসিংদী জেলার পাড়াতলি গ্রামে।

প্রশ্ন-৪. শামসুর রাহমানের পিতার নাম কী?
উত্তর: শামসুর রাহমানের পিতার নাম মুখলেসুর রহমান চৌধুরী।

প্রশ্ন-৫. শামসুর রাহমান কোন স্কুল থেকে প্রবেশিকা পাস করেন?
উত্তর: শামসুর রাহমান পোগোজ স্কুল থেকে প্রবেশিকা পাস করেন।

প্রশ্ন-৬. শামসুর রাহমান কত খ্রিষ্টাব্দে প্রবেশিকা পাস করেছেন?
উত্তর: শামসুর রাহমান ১৯৪৫ খ্রিষ্টাব্দে প্রবেশিকা পাস করেছেন।

প্রশ্ন-৭. শামসুর রাহমান কোন কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েট পাস করেন?
উত্তর: শামসুর রাহমান ঢাকা কলেজ থেকে ইন্টারমিডিয়েট পাস করেন।

প্রশ্ন-৮. শামসুর রাহমান কোন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ পাস করেন?
উত্তর: শামসুর রাহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএ পাস করেন।

প্রশ্ন-৯. শামসুর রাহমান কোন পত্রিকার সাংবাদিক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন?
উত্তর: শামসুর রাহমান দৈনিক মর্নিং নিউজ’-এ সাংবাদিক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন।

প্রশ্ন-১০. দৈনিক বাংলা' পত্রিকার পূর্ব নাম কী?
উত্তর: ‘দৈনিক বাংলা’ পত্রিকার পূর্ব নাম ‘দৈনিক পাকিস্তান’।

প্রশ্ন-১১. শামসুর রাহমানের প্রথম কবিতা প্রকাশিত হয় কোন পত্রিকায়?
উত্তর: শামসুর রাহমানের প্রথম কবিতা প্রকাশিত হয় সাপ্তাহিক ‘সোনার বাংলা' পত্রিকায় ।

🔆🔆 আরও দেখুন: জন্ম নিবন্ধন তথ্য অনুসন্ধান করা (মাত্র ১ মিনিটে)

প্রশ্ন-১২. থরে থরে কৃষ্ণচূড়া কোথায় ফুটেছে?
উত্তর: থরে থরে কৃষ্ণচূড়া শহরের পথে ফুটেছে।

প্রশ্ন-১৩. পথ-ঘাট সারা দেশ ছাড়া সে রঙ আর কোথায় ছেয়ে গেছে?
উত্তর: পথ-ঘাট, সারা দেশ ছাড়াও সে রঙে ঘাতকের অশুভ আস্তানায় ছেয়ে গেছে।

প্রশ্ন-১৪. চতুর্দিকে কী হচ্ছে?
উত্তর: চতুর্দিকে মানবিক বাগান আর কমলবন তছনছ হচ্ছে।

প্রশ্ন-১৫. রাজপথে শূন্যে ফ্ল্যাগ তোলে কে?
উত্তর: রাজপথে শূন্যে ফ্ল্যাগ তোলে সালাম।

প্রশ্ন-১৬. মরা, আধমরা, ভীষণ জেদিরা কী করে?
উত্তর: মরা, আধমরা, ভীষণ জেদিরা বিপ্লবে ফেটে পড়ে।

প্রশ্ন-১৭. ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতায় আমাদের চেতনার রং কী?
উত্তর: ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' আমাদের চেতনার রং একুশের কৃষ্ণচূড়া কবিতায়।

প্রশ্ন-১৮. ঘাতকের আস্তানায় ভূলুণ্ঠিত কারা?
উত্তর: কবি ও কবির মতোই বহুলোক ঘাতকের আস্তানায় ভূলুণ্ঠিত।

প্রশ্ন-১৯. গাঢ় উচ্চারণে কথা বলে কে?
উত্তর: গাঢ় উচ্চারণে কথা বলে বরকত।

প্রশ্ন-২০. কোন ফুল শহরে নিবিড় হয়ে ফুটেছে?
উত্তর: কৃষ্ণচূড়া ফুল শহরে নিবিড় হয়ে ফুটেছে।

প্রশ্ন-২১. কোন ফুল স্মৃতিগন্ধে ভরপুর?
উত্তর: কৃষ্ণচূড়া ফুল স্মৃতিগন্ধে ভরপুর।

প্রশ্ন-২২. পথঘাট কোন রঙে ছেয়ে গেছে?
উত্তর: যে রং সন্ত্রাস আনে, সে রঙে পথঘাট ছেয়ে গেছে।

প্রশ্ন-২৩. ‘হরিৎ উপত্যকা’ অর্থ কী?
উত্তর: ‘হরিৎ উপত্যকা' অর্থ সবুজ উপত্যকা।

প্রশ্ন-২৪. কোথায় দিনরাত ভূলুণ্ঠিত?
উত্তর: ঘাতকের আস্তানায় দিনরাত ভূলুণ্ঠিত।

প্রশ্ন-২৫, কৃষ্ণচূড়া ফুলকে কবি কী হিসেবে অভিহিত করেছেন?
উত্তর: কৃষ্ণচূড়া ফুলকে কবি শহিদের রক্তের ঝলকানি, হিসেবে অভিহিত করেছেন।

প্রশ্ন-২৬, কার অশ্রুজলে বাস্তবের বিশাল চত্বরে ফুল ফোটে?
উত্তর: দুঃখিনি মাতার অশ্রুজলে বাস্তবের বিশাল চত্বরে ফুল ফোটে।

প্রশ্ন-২৭. কী স্মৃতিগন্ধে ভরপুর?
উত্তর: শহরের পথে ঘরে ঘরে ফোটা কৃষ্ণচূড়াগুলো স্মৃতিগন্ধে।

প্রশ্ন-২৮. শামসুর রাহমান সারাজীবন কীসের পক্ষে ছিলেন?
উত্তর: শামসুর রাহমান সারাজীবন গণতন্ত্রের পক্ষে ছিলেন।

প্রশ্ন-২৯. 'প্রথম গান দ্বিতীয় মৃত্যুর আগে' কাব্যগ্রন্থটির লেখক কে?
উত্তর: 'প্রথম গান দ্বিতীয় মৃত্যুর আগে' কাব্যগ্রন্থটির লেখক হচ্ছেন শামসুর রাহমান।

প্রশ্ন-৩০. 'বিধ্বস্ত নীলিমা' কাব্যগ্রন্থের রচয়িতা কে?
উত্তর: 'বিধ্বস্ত নীলিমা' কাব্যগ্রন্থের রচয়িতা শামসুর রাহমান।

প্রশ্ন-৩১. 'ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতাটি কোন ছন্দে রচিত?
উত্তর: ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতাটি গদ্যছন্দে রচিত।

প্রশ্ন-৩২. 'ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতাটি কীসের বিকাশে শ্রেষ্ঠ শিল্পকর্ম হয়ে উঠেছে?
উত্তর: ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতাটি গদ্যছন্দ ও প্রবহমান ভাষার সুষ্ঠু বিকাশে শ্রেষ্ঠ শিল্পকর্ম হয়ে উঠেছে।

প্রশ্ন-৩৩. 'ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতাটি কোন গণজাগরণের পটভূমিতে রচিত?
উত্তর: 'ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতাটি উনিশশো ঊনসত্তর সালের গণ- অভ্যুত্থানের পটভূমিতে রচিত।

প্রশ্ন-৩৪. ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতায় বর্ণিত চতুদিকে মানবিক বাগান কী হচ্ছে?
উত্তর: ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতায় বর্ণিত চতুর্দিকে মানবিক বাগান তছনছ হচ্ছে।

প্রশ্ন-৩৫. কৃষ্ণচূড়া কীসের প্রতীক হয়ে উঠেছে?
উত্তর: কৃষ্ণচূড়া শহিদের, বিপ্লবী-বিদ্রোহীদের প্রেরণার প্রতীক হয়ে উঠেছে।

প্রশ্ন-৩৬. আসাদুজ্জামান কোন আন্দোলনে শহিদ হন?
উত্তর: আসাদুজ্জামান ১৯৬৯ সালের গণঅভ্যুত্থানে শহিদ হন

প্রশ্ন-৩৭. ঐতিহাসিক ছয় দফা কে ঘোষণা করেন?
উত্তর: ঐতিহাসিক ছয় দফা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘোষণা করেন।

প্রশ্ন-৩৮. হেঁটে যেতে যেতে কৃষ্ণচূড়াগুলোকে কবির কী মনে হয়?
উত্তর: হেঁটে যেতে যেতে কৃষ্ণচূড়াগুলোকে কবির শহিদের ঝলকিত রক্তের বুদ্বুদ মনে হয়।

প্রশ্ন-৩৯. 'ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতায় কার অশ্রুজলের কথা বলা হয়েছে?
উত্তর: ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতায় দুঃখিনী মাতার অশ্রুজলের কথা বলা হয়েছে।

প্রশ্ন-৪০. 'ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতায় রৌদ্র কীসের প্রতীক?
উত্তর: ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতায় রৌদ্র আনন্দের প্রতীক।

প্রশ্ন-৪১. বাস্তবের বিশাল চত্বরে ফুল ফোটে কাদের রক্তে?
উত্তর: বাস্তবের বিশাল চত্বরে ফুল ফোটে বীরের রক্তে। প্রশ্ন-৪২. শহরের পথে থরে থরে কী ফুটেছে? উত্তর: শহরের পথে থরে থরে কৃষ্ণচূড়া ফুল ফুটেছে।

প্রশ্ন-৪৩. ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতায় কবি ‘কমল বন’কে কীসের প্রতীকরূপে ব্যবহার করেছেন?
উত্তর: ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতায় মানবিকতা, সুন্দর ও কল্যাণের জগৎ বোঝাতে কবি ‘কমল বন’ প্রতীকটি ব্যবহার করেছেন।

প্রশ্ন-৪৪. শহিদের রক্তের বুদ্বুদ কীসের সাথে তুলনীয়?
উত্তর: শহিদের রক্তের বুদ্বুদ কৃষ্ণচূড়ার সাথে তুলনীয়।

প্রশ্ন-৪৫. 'ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতাটি কোন কাব্যগ্রন্থ থেকে নেওয়া হয়েছে?
উত্তর: ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতাটি ‘নিজ বাসভূমে' কাব্যগ্রন্থ থেকে নেওয়া হয়েছে।

প্রশ্ন-৪৬. ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতায় কৃষ্ণচূড়ার লাল রং কীসের প্রতীক?
উত্তর: ‘ফেব্রুয়ারি ১৯৬৯' কবিতায় কৃষ্ণচূড়ার লাল রং চেতনার প্রতীক।

প্রশ্ন-৪৭. ‘নিরালোকে দিব্যরথ’ কাব্যগ্রন্থটির রচয়িতা কে?
উত্তর: ‘নিরালোকে দিব্যরথ’ কাব্যগ্রন্থটির রচয়িতা শামসুর রাহমান।

প্রশ্ন-৪৮. সারা দেশ কাদের অশুভ আস্তানা?
উত্তর: সারা দেশ ঘাতকের অশুভ আস্তানা।

প্রশ্ন-৪৯. বরকত কোথায় বুক পাতে?
উত্তর: বরকত ঘাতকের থাবার সম্মুখে বুক পাতে ।

প্রশ্ন-৫০. ‘আবার সালাম রাজপথে নামে’— কত সালে?
উত্তর: ‘আবার সালাম রাজপথে নামে'— ঊনিশশো ঊনসত্তর সালে।

প্রশ্ন-৫১. কার হাত থেকে অবিনাশী বর্ণমালা ঝরে পড়ে?
উত্তর: সালামের হাত থেকে অবিনাশী বর্ণমালা ঝরে পড়ে।

প্রশ্ন-৫২. সালামের মুখে কী দেখা যায়?
উত্তর: সালামের মুখে শ্যামল পূর্ব বাংলা দেখা যায় ।

প্রশ্ন-৫৩. ‘সালামের চোখে আজ’— কী?
উত্তর: ‘সালামের চোখে আজ আলোকিত ঢাকা'।

প্রশ্ন-৫৪. ‘রাত্রি-দিন ভূলুণ্ঠিত ঘাতকের আস্তানায়’- কারা ভূলুণ্ঠিত হচ্ছে?
উত্তর: কবি এবং কবির মতোই বহু লোক রাত্রি-দিন ভূলুণ্ঠিত হচ্ছে ঘাতকের আস্তানায় ।

প্রশ্ন-৫৫. কৃষ্ণচূড়াকে কাদের রক্তের বুদ্বুদ মনে হয়?
উত্তর: কৃষ্ণচূড়াকে শহিদের রক্তের বুদ্বুদ মনে হয়।

প্রশ্ন-৫৬. কার মুখে শ্যামল পূর্ব বাংলা?
উত্তর: সালামের মুখে শ্যামল পূর্ব বাংলা।

প্রশ্ন-৫৭. সালামের হাত থেকে নক্ষত্রের মতো অবিরত কী ঝরে?
উত্তর: সালামের হাত থেকে নক্ষত্রের মতো অবিরত অবিনাশী বর্ণমালা ঝরে।

প্রশ্ন-৫৮. কবি শামসুর রাহমান কত খ্রিষ্টাব্দে মৃত্যুবরণ করেন?
উত্তর: কবি শামসুর রাহমান ২০০৬ খ্রিস্টাব্দে মৃত্যুবরণ করেন।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন